The 3 type of digital marketing. ৩ ধরনের ডিজিটাল মার্কেটিং

 The 3 type of digital marketing. ৩ ধরনের ডিজিটাল মার্কেটিং

Marketing Myopia / মার্কেটিং মায়োপিয়া

আবার অনেকেই জানেন আবার অনেকেই জানেন না বিষয় টা।। চলেন তবে জেনে রাখি বিষয় টা।।

প্রথমে জেনে আসি

ইংরেজী তে MYOPIA এর মানে কি?

মায়োপিয়া হচ্ছে দৃষ্টিক্ষীণতা।।

মাইিওপিয়া (প্রাচীন গ্রীক: μυωπία, মুওপিয়া, মঈন থেকে “বন্ধ” – অপস (জেন। অপস) “চোখের”), সাধারণত নিকৃষ্টতম (আমেরিকান ইংরেজি) এবং শর্টসাইটেড (ব্রিটিশ ইংরেজী) নামে পরিচিত।

মার্কেটিং মায়োপিয়া হ’ল কোনও সংস্থার বিপণন পরিচালনার ব্যর্থতা এবং সংকীর্ণ মনোভাব; যা কেবল পণ্য বা পরিষেবার নির্দিষ্ট বৈশিষ্ট্যগুলিতে দৃষ্টি নিবদ্ধ করে রাখে পণ্যের গুণগত মান, গ্রাহকদের প্রয়োজন, চাহিদা এবং তৃপ্তির মতো দীর্ঘ মেয়াদী লক্ষ্যগুলির প্রতি দৃষ্টি না রেখে।।।

এটি মূলত অনেকগুলি বিপণন বৈশিষ্ট্যগুলির মধ্যে কেবলমাত্র একটি দিককে কেন্দ্র করে। উদাহরণস্বরূপ, এমন একটি ব্র্যান্ড যা গ্রাহক বেসের জন্য উচ্চমানের পণ্যগুলির বিকাশের দিকে মনোনিবেশ করে যা মানকে উপেক্ষা করে এবং কেবল দামের দিকে মনোনিবেশ করে।।

উদাহরণ –

যখন আমি কোনো পন্য ডেভলপ করবো,, যেমন ধরেন আমি যদি শাড়ির কথা বলি যে আমি ধরেন মার্কেটে নতুন ভাবে কিছু হাফ সিল্ক এর শাড়ি আনবো নিজস্ব ডিজাইন দিয়ে।।৷ শাড়ি টার ডিজাইন ২/৩ বছর আগে এসেছিলো কিন্ত এখন আর ওই ডিজাইন চলে না তেমন।কাপড় ভালো মানের দিয়ে আমার প্রোডাকশন কস্ট পরলো ৬ পিস ৪৮০০ টাকা।।

এখন ধরেন আমি যদি এই শাড়ির দাম ১৫০০ টাকা পার পিস হিসেবে বিক্রি করারজন্য বসি এবং কাস্টমার আসলে ২/১ পিস যাও বা নিতে চায় ১৫০০ এর নিচে দেই না।।

এখানে আমি আমার হিসাব টা নিয়ে বসে আছি,, কাস্টমারের চাহিদাও দেখলাম না আবার তারা চাইলে দাম ও কমালাম না,, বরং তাদের কে বুঝালাম যে পন্য ভালো কোয়ালিটির,, নিলে এই দামে নিয়েন না হলে নাই।।

এটা এক ধরনের মার্কেটিং মায়োপিয়া।।

 

বিজনেস টু বিজনেস মার্কেটিং কে B2B মার্কেটিং ও বলা হয়। এটি এমন একটি প্রক্রিয়া যেখানে ব্যবসায়ীদের মাঝখানে লেনদেন করা হয়। যেমন –

মনে করুন আপনার একটি Manufacture Company আছে। আপনি ব্যবসার মার্কেটিং করছেন একজন Wholesaler এর কাছে। অথবা একটি Wholesaler Business এর সাথে একটি Retail Business এর লেনদেন হচ্ছে।

লক্ষ করে দেখবেন, এ ক্ষেত্রে ব্যবসা কিন্তু সাধারণ গ্রাহকদের কাছে কোন লেনদেন, প্রচার বা মার্কেটিং করছে না। এভাবে একটি বিজনেসের সাথে অন্য একটি বিজনেসের মার্কেটিং করার প্রক্রিয়াকে Business to Business (B2B) মার্কেটিং বলে।

 

  • Word of mouth marketing.

একই পণ্য বিক্রি করে একজন এর মাসিক ইনকাম ১,০০,০০০ আর আমার মাত্র ১০,০০০।।এর কারন কি? অবশ্যই Marketing..

Marketing এর একটি অংশ হলো “word of mouth marketing ”

একজন ব্যক্তি থেকে অন্য একজন ব্যক্তির কাছে অবাণিজ্যিক ভাবে তথ্য পাঠানো কেই ওয়ার্ড অফ মাউথ মার্কেটিং বুঝায়।

মনে করেন, আপনি জানতে পারলেন যে অমুক এক প্রতিষ্ঠান ফ্রি তে অনেক গরিবদের ২ বেলা খাওয়াচ্ছে প্রতিদিন।একজন সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ব্যাপার এ লিখেছে আপনি সেই থেকেই জানতে পারলেন। তারপর আপনি পোস্ট টা শেয়ার দিলেন বা গল্পের চলে আরো ১০ জন মানুষ কে প্রতিষ্ঠান টি সম্পর্কে জানাই দিলেন।।এতে বিনামূল্যে তাদের প্রতিষ্ঠান এর এডভারটাইজিং হয়ে গেলো।,

আমরা যখন কোনো পন্য কিনতে চাই তখন পণ্যের অনলাইন বিজ্ঞাপন এর উপর ভরষা করার চেয়ে আপন পরিচিত মানুষ দের কাছে ওই পণ্যের ব্যাপার এ জানতে চাই।আর ১জন ভালো ক্রেতা আরো ১০ জন ক্রেতা এনে দিতে পারে। তাই ওয়ার্ড অফ মাউথ এর ব্যবহার অফলাইনে ৯৩%। আর অনলাইন এ ৭%….

স্টার্ট আপ এ অনেক অনেক সেল এর চিন্তা করাটা বোকামি ছাড়া আর কিছুই না! একই ভাবে লাখ লাখ টাকার পণ্য স্টক করা ও।

প্রথমে ধিরে ধিরে মার্কেট ধরতে হবে, ব্র্যান্ডিং করতে হবে। mouth marketing এর ব্যবস্থা করতে হবে। এমন ভালো সার্ভিস দিতে হবে যেনো কাস্টমার খুব উৎসাহের সাথে অন্য একজন কে আপনার পণ্যের ব্যাপার এ জানাতে পারে।

Destroyed marketing বলতে বোঝায় নিজের লাভ না রেখে শুধু ক্রেতাপাওয়ার জন্য মার্কেটিং কে।

ধরুন আপনি একটা জিনিস ৫ টাকা দিয়ে কিনলেন। অন্য সব সেলাররা অন্যন খরচ যোগ করে সেটাকে ৮ টাকা সেল করছে।আপনি সেটাকে ৬ টাকায় সেল দেয়া শুরু করলেন ফলশ্রুতিতে ক্রেতারা আপনার দিকে আসতে থাকলো।

অনেক সময় বড় বড় কম্পানি গুলো ছোট কম্পানিকে মার্কেট থেকে সরিয়ে দেয়ার জন্য এই পলিসি ব্যবহার করে।কেননা ৫ টাকায় কিনে এনে ৬ টাকা সেল করলে তো আর ব্যবসা হয়না।

বর্তমানে অনলাইনেও এমন কিছু মানুষ লক্ষনীয়।যারা দাম কমিয়ে ক্রেতাটানে।তবে Economic ভাবে Destroyed marketing সমালোচিত মার্কেটিং এটাকে নেগেটিভ মার্কেটিং ও বলা যেতে পারে।

 

  • Marketing exparte হতে হলে নিজের মধ্যে যা রাখতে হবে ?

১. নিজেকে মিশুক বানাতে হবে

২. সব সময় মুখে হাসি রাখতে হবে

৩. কথা বলতে হবে

৪. নিজেকে সব-সময় পরিপাটি রাখতে হবে

৫. কনফিডেন্স সহকারে কথা বলতে হবে,আপনি যদি মিথ্যাও বলেন সেটাকে আপনার কনফিডেন্সে দিয়ে সত্যি হয়ে যাবে.

৬.চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলা শিখতে হবে

৭. সবাইকে সম্মান করতে হবে / সু-সম্পর্ক বজায় রাখতে হবে.

৮.রাগকে মাটি দিয়ে দিতে হবে

৯. নিজের চিন্তার প্রতিফলন করা শিখতে হবে

১০.সব-সময় শেখার চেষ্টা করতে হবে

About Shohel Shikder

Check Also

সেকেন্ডে ৩১৯ টেরাবিট: ইন্টারনেট গতির নতুন রেকর্ড জাপানে

সেকেন্ডে ৩১৯ টেরাবিট: ইন্টারনেট গতির নতুন রেকর্ড জাপানে

সেকেন্ডে ৩১৯ টেরাবিট: ইন্টারনেট গতির নতুন রেকর্ড জাপানে সর্বোচ্চ ইন্টারনেট গতির নতুন বিশ্ব রেকর্ড গড়েছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *