ব্ল্যাকহেড থেকে স্থায়ী মুক্তি পাওয়ার ঘরোয়া পদ্ধতি । বিস্তারিত জেনে নিন।

ব্ল্যাকহেড থেকে স্থায়ী মুক্তি পাওয়ার ঘরোয়া পদ্ধতি ।

ত্বকের ময়লা ঠিক মতো পরিষ্কার করা না হলে এর উপর আরোও বেশি তেল ময়লা জমতে থাকে। এক সময় তা ব্ল্যাকহেডস এর রূপ নেয়। শুরু থেকে সচেতন না হলে এটি স্থায়ী হয়ে বসে। আসুন জেনে নিই ঘরোয়া পদ্ধতিতে ব্লাকহেডস থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়।

টুথপেস্টঃ
অনেকদিনের জমে থাকা ব্ল্যাকহেডস পরিষ্কার করা বেশ ঝক্কির ব্যাপার। আর একদিনে তা কখনও দূর হয়না। সেক্ষেত্রে সামান্য সাদা টুথপেস্ট নিয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখুন মিনিট পাঁচেক। এরপর নরম একটি টুথ ব্রাশের সাহায্যে আস্তে আস্তে স্ক্রাব এর মতো করে ঘষতে থাকুন। ত্বকের মরা চামড়া উঠে আসার সঙ্গে সঙ্গে এটি ব্ল্যাক হেডস গুলোকে নরম করে ফেলে। ব্রাশ দিয়ে ঘষে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ৫ মিনিট গরম পানির ভাপ নিন। এতে পোরস গুলো খুলে যাবে। এরপর আবারো ব্রাশ দিয়ে ঘষুন, দেখবেন খুব সহজেই ব্ল্যাক হেডস গুলো উঠে আসবে। সপ্তাহে ১ বার করুন।

আমণ্ড গোলাপজলঃ
২ চামচ আমণ্ড গুঁড়ো আর ১ চামচ গোলাপজল এর পেস্ট তৈরি করুন। এবার এই পেস্ট সম্পূর্ণ মুখে লাগিয়ে সার্কুলার মোশনে ধীরে ধীরে মাসাজ করুন ২-৩ মিনিট। এর পর ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। ব্ল্যাকহেডস দূর করার সাথে সাথে এটি স্কিনে উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনবে।

মধুঃ
শুষ্ক ত্বকেও হতে পারে ব্ল্যাকহেডস। তাদের জন্য মধু আদর্শ। দারুচিনি গুঁড়ো আর মধু ২:১ পরিমাণে মিশিয়ে ব্ল্যাক হেডস এর উপর ১৫-২০ মিনিট রাখুন। এর পর ২ মিনিট মাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। একই সাথে এটি ময়েশ্চারাইজার আর স্ক্রাব হিসেবে কাজ করে। সপ্তাহে ২ বার ব্যবহারে ব্ল্যাকহেডস অনেকটাই কমে আসবে।

টিপসঃ
বালিশের কভার প্রতি সপ্তাহে পালটে ফেলুন। আপনার ব্যবহারের চিরুনি, তোয়ালে সবসময় পরিষ্কার রাখুন। ব্ল্যাকহেডস, পিম্পল, খুশকি এসব কিছুর প্রকোপ থেকে কিছুটা মুক্তি পাবেন।

নিয়মিত এই পদ্ধতি গুলো ব্যাবহার করলে ব্লাকহেডস থেকে স্থায়ী মুক্তি পাওয়া কঠিন কিছু নয়।

About regulartechbd

Check Also

চুলের শুষ্কতা রোধে পাঁচ সূত্র

১. চুলের শুষ্কতা প্রতিরোধে স্বাস্থ্যকর খাবার খান। এই ক্ষেত্রে দিনে তিন থেকে চারটি কাঠবাদাম বা …

2 comments

  1. I don’t even know how I ended up here, but I thought this
    post was great. I do not know who you are
    but definitely you are going to a famous blogger if you aren’t already ;
    ) Cheers!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *