বিশ্ব বিখ্যাত বন্দুক। যানলে অবাক হয়ে যাবেন। AK-47 আবিষ্কার কে করেছে?

  • যুদ্ধ তো হাজার বছর ধরে চলে আসছে কিন্তু সময়ের সাথে সাথে যুদ্ধের হাতিয়ারও বদলে গেছে।
যেমন প্রথমে মানুষ পাথরের হাতিয়ার ব্যবহার করতো,তারপর তির-ধনুক তারপর তলোয়ারের ব্যবহার। একজন অন্য জনের থেকে থেকে শক্তিশালী হয়ে ওঠার জন্য বিভিন্ন ধরনের হাতিয়ার বানানো শুরু করলো।

  • আর শেই জন্য আজ থেকে প্রায় ৫০০ বছর আগে আবিষ্কার হয়েছে বন্দুক। যেটা কিনা যুদ্ধ করার নিয়মটাই বদলে ফেলেছে। তখন যে বন্দুক ছিল সেটা এত শক্তিশালী না হলেও মানুষ মরতো।
তারপর বন্দুকের দূনিয়াতে পরিবর্তন আসে,আর সময়ের সাথে সাথে এটার সাথেও টেকনোলজি কাজে লাগাল।
আর যেখানে আমরা বন্দুকের কথা বলছি,তাহলে তো সবার সিপাহী পছন্দের AK-47 এর কথা তো বলতেই হয়। যে কিনা শত্রুর ১২টা বাজিয়ে দেয়।

আপনি কি জানেন এই AK-47 কে এবং কেন বানিয়েছিলো?

  • এই বন্দুক তৈরির পেছনেও অনেক ঘটনা আছে। আর এই ঘটনা শুরু হয় আজ থেকে প্রায় ৭৮ বছর আগে থেকে। যখন ১৯৪০ সালে ২য় বিশযুদ্ধের সময় মিখাইল খালাস্নি নামের এক বেক্তির কাধে গুলি লাগে,তিনি ছিলেন ট্যাঙ্ক কমান্ডার,গুলি লাগার পর তাকে হাসপাতাল ভর্তি করানো হয়। এর ফলে কিছু সৈনিক ভাবতে শুরু করলো তাদের বন্দুকের থেকে শ্ত্রুদের থেকে দুর্বল তাই তাদের সৈনিকের জীবন হারাচ্ছে। আর এই সমস্যা দেখে মিখাইল এই নতুন হাতিয়ারের ডিজাইন তৈরি করলো,আর হাসপাতাল থেকে বের হওয়ার পর সে এই প্রোজেক্ট এর ওপর কাজ শুরু করে।

  • মিখাইলে ১৯৪২ সালে সাবমেশিনগান, আর ১৯৪৩ সালে লাইট মেশিনগান এর কাজ করেন। ১৯৪৪ সালে সেমি অটোমেটিক গ্যাসে কাজ করা একটি বন্দুক বানায় যেটা লম্বা স্টোক দ্বারা তৈরি ছিল।
এই বন্দুক নিয়ে একটি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করেন,কিন্তু সেখানে তার বন্দুক SKS-45 SIMONOV নামের বন্দুকের কাছে হেরে যায়।

যদিও ২ বন্দুকের ডিজাইন প্রায় এক রকম ছিল। এই হারের পর মিখাইল বন্দুকের কাজের ওপর আরো কঠোর পরিশ্রম করা শুরু করলো।

আর ১৯৪৬ সালে নতুন আরেকটি বন্দুকে নিয়ে সামনে আসলো যার নাম তিনি AK-46 দিয়েছিল,তারপর ১৯৪৭ সালের নভেম্বর মাসে পুরানো সব বন্দুকের থেকে সিক নিয়ে অনেক পরিবর্তনের পর এক নতুন বন্দুকের উপর কাজ শুরু করলো যার লম্বা বেরেলের উপর একটা গ্যাসপিস্টল লাগানো হয়। আর এই বন্দুকের নাম AK-47। বন্দুকের ডিজাইন খুব সাধারন,এবং এটা চালানোও খুব সহজ। এই বন্দুককে ১৯৪৮ সালে টায়ালের জন্য ARMY দের দেওয়া হয়।আরমিরাও এটি চালানোর পর সব থেকে ভালো বন্দুক বললো।

  • তারপর এটি ১৯৪৯ থেকে এটা রাশিয়া আর রোসি সেনার সাথে এখন প্রায় ১০৬টি দেশের সেনারা এই বন্দুক ব্যবহার করে।
AK-47 এর অর্থঃ
                         A=AUTOMATIC
                         K=kALASHNIKOV
১৯৪৭ সালে তৈরি তাই 47 নাম দিয়েছেন।



আর এটার আবিস্কারক Mikhail Kalashnikov এই বন্দুক থেকে ১টাকাও কামায়নি,সে এই বন্দুক ও তার  টাকা দেশের সেবার জন্য দান করেন।

আর Mikhail Kalashnikov ২০১৩ সালে মারা যান।




এ ধরনের সব Update খবর জানলে এখানে ক্লিক করুন.














































teg:AKM,AK47,BestGun,

About regulartechbd

Check Also

কালো বিড়াল!

কালো বিড়াল! কালো বিড়ালকে অনেকেই অশুভ বলে, আবার অনেকে পছন্দ করেন না। প্রায় দেখা যায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *